Tuesday,  Sep 18, 2018   03:05 AM
Untitled Document Untitled Document
সংবাদ শিরোনাম: •লক্ষ্মীপুরে মাদক ব্যবসায়ীর মুক্তির দাবিতে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন, বিপাকে শিক্ষক •রামগঞ্জে মাদ্রাসায় শিক্ষার্থীদের বলাৎকার; অভিভাবকগণ আতঙ্কে •রামগঞ্জে ক্ষুদে মেসি: ৪ ম্যাচে ৯ গোল! •পশুর সাথে শত্রুতা- অল্পের জন্য রক্ষা! •একজন যোগ্য শিক্ষকের হাত ধরে তৈরি হয় একজন সু-নাগরিক...... ড. আনোয়ার হোসেন খাঁন •রামগঞ্জে রমজান উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত •লক্ষ্মীপুরে রেড ক্রস ও রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত
Untitled Document

২০ মাসেও গঠিত হয়নি লক্ষ্মীপুরের জেলা ছাত্রলীগের পূর্নাঙ্গ কমিটি

তারিখ: ২০১৬-০৯-০৮ ১০:২৭:৩৮  |  ১৯৩৩ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

কিশোর কুমার দত্ত, ৮ সেপ্টেম্বর:
লক্ষ্মীপুর জেলা ছাত্রলীগের পূর্নাঙ্গ কমিটি ২০ মাসেও গঠন করতে পারেনি নেতারা। এতে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্ভর হয়ে পড়ছে সাংগঠনিক কার্যক্রম। এ অবস্থায় পদ প্রত্যাশীদের মাঝে দেখা দিয়েছে হতাশা।
দলীয় সূত্রে জানা যায়, জেলা স্টেডিয়াম মাঠে ২০১৪ সালের ২০ নভেম্বর সর্বশেষ জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। পরের বছরের ১০ জানুয়ারি কেন্দ্রীয় নেতারা চৌধুরী মাহমুদুন্নবী সোহেলকে সভাপতি, আশরাফুল আলমকে সহ-সভাপতি, রাকিব হোসেন লোটাসকে সাধারণ সম্পাদক, শাহাদাত হোসেন শরিফকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও মামুনুর রশিদকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ৫ সদস্যদের আংশিক একটি কমিটি ঘোষণা করেন।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বর্তমান কমিটি দায়িত্ব নেওয়ার পর লক্ষ্মীপুর পৌরসভা, সদর, সরকারি কলেজ, রামগঞ্জ উপজেলা ও চন্দ্রগঞ্জ থানা কমিটি ঘোষণা করা হয়। বিলুপ্ত করা হয়- রায়পুর উপজেলা, পৌরসভা, সরকারি ডিগ্রি কলেজ ও রামগতি উপজেলা শাখা কমিটি। এছাড়া ২০১২ সালে রামগঞ্জ পৌরসভা কমিটি হয়েছে। ওই কমিটির সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাছান ফয়সাল মালকে সম্প্রতি উপজেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক পদে শুভকে মনোনীত করা হয়। উপজেলা কমিটি ঘোষিত হওয়ার দীর্ঘ সময় পার হয়ে গেলেও অধ্যাবদি ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি পূনঃরুপ পায়নি।
এতে সাংগঠনিক কর্মকান্ড অনেকটাই সভাপতি সাধারন সম্পাদক নির্ভর হয়ে পড়ছে। এক প্রকার নিস্ক্রিয় হয়ে আছে পৌর কমিটি। কলেজ শাখা ছাত্রলীগেও একই অবস্থা।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সাবেক ছাত্রলীগ নেতা বলেন, কেন্দ্র ঘোষিত ৫ নেতা এক বারের জন্যও নিজেরা এক সাথে বসতে পারেননি। এজন্য সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের ব্যানারে বিভক্ত হয়ে তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকরা কাজ করছে। এটি দলের জন্য অশনি সংকেত। এ অবস্থা থেকে উত্তরণ হতে না পারলে খেসারত দিতে হবে দলকে।
এ ব্যাপারে জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মামুনুর রশিদ বলেন, কমিটি ঘোষণার পর থেকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে অন্যদের নূন্যতম সমন্বয় নেই। দলীয় বিভিন্ন কর্মসূচি আয়োজন করা হলেও তারা আমাদের জানানোর প্রয়োজনও অনুভব করে না। নিজেদের অনুসারী কাছের ছোট ভাইদের নিয়েই তারা ব্যস্ত।
জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি চৌধুরী মাহমুদুন্নবী সোহেল বলেন, পূর্নাঙ্গ কমিটি গঠনের লক্ষ্যে নিজেদের মধ্যে একাধিকবার বৈঠক করা হয়েছে। শীঘ্রই কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে এটি অনুমোদনের জন্য জমা দেওয়া হবে। এতে সাংগঠনিক কার্যক্রমে গতি আরো বাড়বে।
জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিব হোসেন লোটাস বলেন, আগামী ১ সপ্তাহের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি দেওয়া হবে।


নিউজ: কিশোর কুমার দত্ত


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•লক্ষ্মীপুরে মাদক ব্যবসায়ীর মুক্তির দাবিতে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন, বিপাকে শিক্ষক •লক্ষ্মীপুরে রেড ক্রস ও রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত •লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক এম এ মালেকের ইন্তেকাল •নাশকতার আশংকা: লক্ষ্মীপুরে বিএনপি-জামায়াতের ২০ নেতাকর্মী আটক •লক্ষ্মীপুরে আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস পালিত •লক্ষ্মীপুরে ভাষা সৈনিক কমরেড তোয়াহা’র স্মরণ সভা •নিখোঁজের ৪ দিন পর, লক্ষ্মীপুরে বৃদ্ধের পেট ও হাতের আঙ্গুল কাটা লাশ উদ্ধার •লক্ষ্মীপুরে লাদেন মাসুমের সহযোগী চা দোকানী গ্রেপ্তার, ২৮৬ রাউন্ড গুলি ও একটি বন্দুক উদ্ধার
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

  • Top
    Untitled Document