Thursday,  Nov 15, 2018   03:28 AM
Untitled Document Untitled Document
সংবাদ শিরোনাম: •লক্ষ্মীপুরে মাদক ব্যবসায়ীর মুক্তির দাবিতে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন, বিপাকে শিক্ষক •রামগঞ্জে মাদ্রাসায় শিক্ষার্থীদের বলাৎকার; অভিভাবকগণ আতঙ্কে •রামগঞ্জে ক্ষুদে মেসি: ৪ ম্যাচে ৯ গোল! •পশুর সাথে শত্রুতা- অল্পের জন্য রক্ষা! •একজন যোগ্য শিক্ষকের হাত ধরে তৈরি হয় একজন সু-নাগরিক...... ড. আনোয়ার হোসেন খাঁন •রামগঞ্জে রমজান উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত •লক্ষ্মীপুরে রেড ক্রস ও রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত
Untitled Document

দেওয়ানী আইন সংশোধনী স্থগিত

তারিখ: ২০১৬-০৬-১৬ ০০:০৬:২৮  |  ১৩০৮ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

ঢাকা : ‘সিভিল কোর্টস অ্যাক্ট ২০১৬’ সংশোধন করে দেওয়ানী নিম্ন আদালতের বিচারকদের ৫ লাখের পরিবর্তে ৫ কোটি টাকা মূল্যমানের মামলা নিষ্পত্তির এখতিয়ার প্রদান করে সরকারের গেজেট প্রকাশের কার্যক্রম স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ৩ মাসের জন্য এ স্থগিতাদেশ দেয়া হয়েছে।

একইসঙ্গে সিভিল কোর্ট সংশোধনী আইন ২০১৬ কেন অসাংবিধিানিক ও বেআইনি ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।

আগামী ৩ সপ্তাহের মধ্যে আইন সচিব, সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার ও হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।
 
এ বিষয়ে দায়ের করা এক রিট আবেদনের  শুনানি শেষে বিচারপতি সৈয়দ মো. দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো. একেএম সাহিদুল হকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। রিটকারীর পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার একে রাশেদুল হক অমিত ও রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল অরবিন্দ কুমার রায়। 

পরে আদালত থেকে বেরিয়ে ব্যারিস্টার একে রাশেদুল হক অমিত বলেন, ‘ঐতিহাসিক মাসদার হোসেন মমালার রায় অনুযায়ী কোনো আইন সংশোধন করতে হলে সুপ্রিম কোর্টের সঙ্গে পরামর্শ করে করতে হয়। কেননা বিচার বিভাগের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষমতা শুধুমাত্র সুপ্রিম কোর্টের। কিন্তু সিভিল কোর্টস অ্যাক্ট সংশোধন করে দেওয়ানী আদালতের বিচারকদের ৫ লাখের পরিবর্তে ৫ কোটি টাকা মূল্যমানের মামলা নিষ্পত্তির এখতিয়ার প্রদান করে সরকার যে গেজেট প্রকাশ করতে যাচ্ছে এ ক্ষেত্রে সুপ্রিমকোর্টের সঙ্গে কোনো পরামর্শ করা হয়নি।

সরকার এ আইনের মাধ্যমে বিচার বিভাগের ওপর হস্তক্ষেপ করেছে। এ আইনের ফলে হাইকোর্টে বিচারাধীন অনেক মামলা নিম্ন আদালতে পাঠাতে হবে।

গত ০৫ জুন আলী আজম ফরাজী নামে একজন বিচারপ্রার্থী এ বিষয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন। দু’দিন ব্যাপী শুনানি শেষে বুধবার (১৫ জুন) আদালত এ আদেশ দেন।  

উল্লেখ্য,সিভিল কোর্টস অ্যাক্ট-১৮৮৭ সংশোধন করে গত ১২ মে গেজেট জারি করে সরকার। সে অনুযায়ী একজন সহকারী জজ ২ লাখের পরিবর্তে ১৫ লাখ, সিনিয়র সহকারী জজ ৪ লাখের পরিবর্তে ২৫ লাখ ও জেলা জজ ৫ লাখের পরিবর্তে ৫ কোটি টাকা মূল্যমানের মামলা নিষ্পত্তি করতে পারবেন। ফলে ৫ লাখের ওপর থেকে ৫ কোটি টাকা মূল্যমানের যেসব দেওয়ানী মামলায় হাইকোর্টে আপিল হয়েছে সেগুলো নিম্ন আদালতে ফেরত যাওয়ার কথা রয়েছে।


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•লক্ষ্মীপুরে পরিবার পরিকল্পনা মেলা উপলক্ষ্যে মতবিনিময় •রামগঞ্জে এনজিও কর্মীকে গুলি করে টাকা ছিনতাই প্রধান আসামী অস্ত্রও গুলিসহ গ্রেফতার
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

  • Top
    Untitled Document